ইসলামিক ডেস্ক:আগামী ৯ অক্টোবর ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ রোববার সারা দেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হবে।’ দিনটি বিশ্বের মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সর্বশেষ ও সর্বশেষ্ঠ নবীর জন্ম ও মৃত্যু একইদিনে হলেও মুসলিমরা দিনটিকে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা:) হিসেবে পালন করে থাকে। এ উপলক্ষে দেশে সরকারি ছুটি থাকে।

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো; ফরিদুল হক খান বলেছেন, হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরীম  আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন  প্রতিযোগিতায় বিজয়ী  হয়ে বাংলাদেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছে।

ইসলামিক ডেস্ক:সৌদি আরবের পবিত্র নগরী মক্কায় অনুষ্ঠিত ৪২তম বাদশাহ আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছেন বাংলাদেশের হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরিম। স্থানীয় সময় বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে মক্কার পবিত্র হারাম শরিফে একটি বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে চূড়ান্ত বিজয়ীদের মধ্যে তৃতীয় বিজয়ী হিসেবে তাকরিমের নামও ঘোষণা করা হয়। এ সময় তার হাতে এক লাখ রিয়াল (প্রায় সাড়ে ২৭ লাখ টাকা) পুরস্কার ও সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেয়া হয়।

ইসলামিক ডেস্ক:প্রাচীনকালে মুসলিম বিজ্ঞানীরা অনেক কিছু আবিষ্কার করেছিলেন। বিভিন্ন সময়ে মুসলিমদের আবিষ্কারসমূহ মানব সভ্যতাকে বিশেষভাবে সমৃদ্ধ করেছে। এভাবে এক সময় মুসলমানদের হাত ধরে বিজ্ঞান আজ স্বর্ণযুগে পদার্পণ করেছে।  ইসলামের সর্বপ্রথম বিজ্ঞানী জাবির ইবনে হাইয়ান যাকে রসায়ন বিজ্ঞানের জনক বলা হয়।

ড. মোঃ শরিফুল ইসলাম:
ভূমিকাঃ অ্যান্টিবায়োটিক-মুক্ত পোল্ট্রি উৎপাদন সাম্প্রতিক বছরগুলিতে একটি আলোচিত বিষয়। অনেক দেশ অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্ট-এর বৃদ্ধির প্রবর্তক হিসাবে প্রাণী খাদ্যে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশে মানুষের জন্য চিকিত্সায় গুরুত্বপূর্ণ অ্যান্টিবায়োটিকগুলিকে নিয়ন্ত্রিত বা অপসারণ করা হয়েছে, এমনকি পোল্ট্রি উৎপাদনে উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উদ্যোগে বিশ্বব্যাপী “বিশ্ব এ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ” (১৬-২২ নভেম্বর) পালন করা হয়েছে। এর উদ্দেশ্য হলো, মানুষকে এটা মনে করিয়ে দেয়া যে অ্যান্টিবায়োটিক-প্রতিরোধী ক্ষমতাসম্পন্ন ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে, তাই এটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক হওয়া দরকার। সুতরাং সময় থাকতে আমাদের সকলেরই সচেতন হতে হবে।

ইসলামিক ডেস্ক:সর্বক্ষেত্রেই ভরসা রাখুন মহান আল্লাহর উপর সবচেয়ে বড় যে লাভটা হয়, তা হলো, জীবনের কোনো সমস্যাকেই আর ‘বড়’ মনে হয় না। আল্লাহর উপর আস্থা ও বিশ্বাস এমন এক প্রোটেকশান, যেটা দিয়ে সব সমস্যার মোকাবেলা করা যায়। অন্তত কখনও ভেঙে পড়তে হয় না। মানসিক শক্তির একটা তেজ থাকে। দুনিয়ার জীবনে এই শক্তির জায়গাটা থাকলে আর কী লাগে?