এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:দিনাজপুরের নশিপুরে অবস্থিত বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষনা ইনষ্টিটিউটের নতুন মহাপরিচালক (চলতি দায়িত্ব) হিসেবে যোগদান করেছেন ড. মোঃ আমিরুজ্জামান। এর পূর্বে তিনি অত্র প্রতিষ্ঠানে মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সম্প্রতি কৃষি মন্ত্রালয়ের এক অফিস আদেশে তাকে এ পদে নিয়োগ প্রদান করা হয়।

বাকৃবি প্রতিনিধি:পুরো নাম সাকার মাউথ ক্যাটফিশ। অনেকে সাকার ফিশ নামে চেনে। বৈজ্ঞানিক নাম হিপোসটোমাস প্লেকোসটোমাস। অ্যাকুরিয়ামে চাষযোগ্য বিদেশি প্রজাতির এই ক্ষতিকর মাছটি এখন হর হামেশাই দেখা মিলছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) জলাশয়গুলোতে। তবে দ্রুত বংশ বিস্তারকারী মাছটি কিভাবে জলাশয়গুলোতে এসেছে সঠিক তথ্য দিতে পারছে না কেউ।

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট এর সাবেক পরিচালক ও বিশিষ্ট মৃত্তিকা বিজ্ঞানী জনাব মোঃ দেলোয়ার হোসেন মোল্লা আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আজ সকাল ৭.৩০ মিনিটে হৃদরোগ সংক্রান্ত জটিলতায় তিনি ঢাকায় ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক পুত্র, এক কন্যাও  অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার বয়স হয়েছিল প্রায় ৬৩ বছর।

“MANAGEMENT PERSPECTIVES FOR SUSTAINABLE COST REDUCTION OF LAYERS FEED” 3 RD AND 27TH MAY 2021
Agrilife24.com: BETTER PHARMA (International Animal Health Business) together with Assoc. Prof. Yuwares Ruangpanit (Ph.D.) recently, an online seminar was held to suit the situation in the very important topic “Management Perspectives for Sustainable Cost Reduction of Layers feed”. There are interested parties who attended both times, including at least 4 countries, Bangladesh, Vietnam, the Philippines and Indonesia, and most of the participants were nutritionists. In this 2 times seminar, participants were given the speaker's perspective, which can be summarized in a holistic way as follows:

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রবীন কৃষিবিদ ও সাবেক পরিচালক (যুগ্ম সচিব), কৃষি বিপনণ অধিদপ্তর মোঃ সিদ্দিকুর রহমান ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আজ ৩ জুলাই ভোরে আনুমানিক ৩:৪৫ টায় মগবাজারের ডা: সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বৎসর।

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:দেশে বিদ্যমান করোনার পরিস্থিতিতে সরকার খেটে খাওয়া দিনমজুরশ্রমিকদের মধ্যে খাদ্য সহায়তা প্রদান করছে। খাদ্য গ্রহণের মূল উদ্দেশ্য হলো সুস্থ, সবল ও কার্যক্ষম হয়ে বেঁচে থাকা। যে কোনো খাবার খেয়ে পেট ভরানো যায় কিন্তু তাতে দেহের চাহিদা মিটিয়ে সুস্থ থাকা যায় না। কাজেই প্রকৃত খাদ্য ও পুষ্টির জন্য নানা ধরনের ফল-সবজি অতি প্রয়োজনীয় খাদ্য। দেহের ক্ষয় পূরণ, পুষ্টি সাধন এবং দেহকে সুস্থ ও নিরোগ রাখার জন্য এসব গ্রহন অপরিহার্য।