দুধ মাংসের বাংলাদেশ তৈরিতে কাজ করছে এসিআই: ড. এফ এইচ আনসারী

বিশেষ প্রতিবেদক:দুধ মাংসের বাংলাদেশ তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছে এসিআই লিমিটেড। সেলক্ষে পরিকল্পনা অনুযায়ী দীর্ঘদিন যাবৎ প্রাণিসম্পদের সুরক্ষা ও উন্নয়নের জন্য নিবেদিতভাবে কাজ করে যাচ্ছে এসিআই। গবাদিপশুর খাদ্য ও পুষ্টি, চিকিৎসা ও প্রতিষেধক, খামার ব্যবস্থাপনা সামগ্রী, আধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত যন্ত্রপাতি আল্ট্রা সনোগ্রাম, ম্যাষ্টাইটিস ডিটেকটর, খামারের তাপ ও আদ্রতা নির্ণয় যন্ত্র, খামারী APPS ইত্যাদি সরবরাহের মাধ্যমে এবং সর্বোপরি গবাদিপশুর জাত উন্নয়নের জন্য উন্নতমানের সিমেন সরবরাহ করছেন তারা।  

বুধবার (১৫ জুন) গাজীপুরের শ্রীপুরে এসিআই অ্যানিমেল জেনেটিক্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে এসব কথা বলেন, এসিআই এগ্রিবিজনেসেস-এর প্রেসিডেন্ট ড. এফ এইচ আনসারী।



অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মনজুর মোহাম্মদ শাহজাদা। আরো উপস্থিত ছিলেন শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তরিকুল ইসলাম, গাজীপুরের কালীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারজানা ইয়াসমিন, শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির হিমু, গাজিপুর জেলা ডেইরি এসোসিয়েশন-এর সাধারণ সম্পাদক শাহিনুর ইসলাম প্রমুখ।



ড. এফ এইচ আনসারী বলেন, কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে দুধ ও মাংসের উৎপাদন বৃদ্ধির চেষ্টা করছে এসিআই। পশুর অধিক উৎপাদনশীল জাত তৈরি হচ্ছে। ৪৫ লিটার দুধ দেওয়া গাভী তৈরি করা হচ্ছে। ৪০০-৫০০ কেজি মাংস দেওয়া গরুও আমরা তৈরির চেষ্টা করছি। এজন্য আমরা গাজীপুরের রাজাবাড়িতে বিস্তৃত পরিসরে গড়ে তুলেছি এসিআই লিমিটেডেরএর বিশেষায়িত জেনেটিক্স রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টার।  



তিনি বলেন, এসিআই এর এ জেনেটিক্স রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে সিমেন সংগ্রহ ও প্রসেসিং করা যাচ্ছে  যা এসিআই সিমেন নামে দেশব্যাপী পৌঁছে যাচ্ছে খামারির কাছে। কেবল প্রযুক্তি উদ্ভাবন কিংবা গবেষণা নয় আমরা সারাদেশে প্রতিটি ইউনিয়নে দক্ণ AI কর্মী তৈরির জন্যও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করছি আমরা। যারা উন্নত মানের গবাদীপশুর জাত উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে।



ড. এফ এইচ আনসারী বলেন, মূলত মাংস ও দুধ উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে খামারীর মুখে হাসি ফোটানোই এসিআই এর মূল লক্ষ্য।  এসিআই এনিম্যাল জেনেটিক্স থেকে কৃত্রিম প্রজননের প্রশিক্ষণ নিয়ে সাবলম্বী হচ্ছে গ্রাম বাংলার অসংখ্য বেকার যুবক। এতে করে ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এসিআই উৎপাদিত আন্তজার্তিক মানের সিমেন ব্যবহার করে ভালো ফলাফল পাচ্ছেন প্রান্তিক পর্যায়ের খামারীগণ এবং তাদের কারিগরী সেবাও ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হচ্ছে সংশ্লিষ্ট সকলের নিকট।  



অনুষ্ঠানে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এবং প্রাণিসম্পদ খাতের উদ্যোক্তা ও খামারিগণ, এসিআই এনিমেল হেলথ চিফ টেকনিকাল এডভাইজার ডা. এম এ সালেক ও চিফ অ্যাডভাইজার ডা. হীরেশ রঞ্জন ভৌমিক, এসিআই এনিমেল জেনেটিক্সের বিশেষজ্ঞ ডা. অরবিন্দ কুমার সাহা, এসিআই সীড-এর বিজনেস ডিরেক্টর সুধীর চন্দ্র নাথ, এসিআই এনিমেল হেলথ-এর ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মোহাম্মদ শাহিনশাহ, এনিমেল জেনেটিক্সের বিজনেস ম্যানেজার মোজাফফর উদ্দিন আহমেদ, সহ এনিমেল জেনেটিক্স এবং এনিমেল হেলথ-এর কর্মকর্তা বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।