কৃষিবিদ দীন মোহাম্মদ দীনু:"আমরা ক'জন মুজিব সেনা", ময়মনসিংহ জেলা শাখা  আয়োজিত "ফ্রি ডেন্টাল ক্যাম্প" ১৭ জুন ২০২২ শুক্রবার সকাল ৮টা হতে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ময়মনসিংহ সদরের বোররচর ইউনিয়নের 'ইউনিয়ন পরিষদ' কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ  আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক জনাব এ.কে.এম আফজালুর রহমান বাবু'র সার্বিক সহযোগিতায় "আমরা ক'জন মুজিব সেনা", ময়মনসিংহ জেলা শাখা তাদের সামাজিক কর্মসূচীর অংশ হিসাবে এ ফ্রি ডেন্টাল ক্যাম্প পরিচালনা করবে।

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:বরিশাল 'হাই-টেক পার্ক’ বরিশাল অঞ্চলকে প্রযুক্তি সমৃদ্ধ নগরীতে পরিণত করবে। বরিশালের তরুণ প্রজন্ম তাদের মেধার যথাযথ বিকাশ ঘটিয়ে কর্মসংস্থানের জন্য নিজেকে তৈরি করতে পারবে পাশাপাশি অন্যদের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করতে সক্ষম হবে। বরিশাল নগরী "সিলিকন নগরী" হিসেবে গড়ে উঠবে যা স্মার্ট  বাংলাদেশ বিনির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।

কৃষিবিদ মো: আব্দুল্লাহ-হিল-কাফি:‘মানুষের নিরাপদ খাদ্য চাহিদা নিশ্চিতকরণের ওপর আমরা জোর দিচ্ছি। এজন্য লাভজনক, টেকসই ও পরিবেশ বান্ধব একটি কৃষি ব্যবস্থা নিশ্চিত করণের চেষ্টা চলছে। গম বাংলাদেশের দানা ফসলে মধ্যে ২য় তাই এর চাষাবাদ বৃদ্ধি সম্প্রসারণ আরো করতে হবে। ব্লাস্ট গমের একটি মারাত্বক রোগ তবে ব্লাস্ট রোগ প্রতিরোধী জাত হিসেবে ‘বারি গম-৩৩’ নামে জাতটি মাঠ পর্যায়ে বেশ ভাল ফলাফল প্রদর্শন করেছে।

নাহিদ বিন রফিক (বরিশাল): বরিশালে ভাসমান কৃষি বিষয়ক গবেষণা কর্মসূচি প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন শীর্ষক দুইদিনের বিজ্ঞানীদের প্রশিক্ষণ উদ্বোধন করা হয়েছে। আজ রহমতপুরের আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে (আরএআরএস) ভাসমান বেডে সবজি ও মসলা চাষ, গবেষণা, সম্প্রসারণ ও জনপ্রিয়করণ প্রকল্পের উদ্যোগে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে ভার্চুয়ালী যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএআরআই) মহাপরিচালক ড. দেবাশীষ সরকার।

কৃষিবিদ দীন মোহাম্মদ দীনু, বাকৃবি,ময়মনসিংহ: কৃষক, কৃষি উদ্যোক্তা, ছাত্রছাত্রী ও সাধারণ জনগণকে আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতির সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি শক্তি ও যন্ত্র বিভাগ পরিচালিত এপ্রোপ্রিয়েট স্কেল মেকানাইজেশন ইনোভেশন হাব (আসমি)-বাংলাদেশ প্রকল্প এর আয়োজনে এবং ফুলপুর উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় কৃষি যান্ত্রিকীকরণ বিষয়ক সেমিনার ও কৃষি যন্ত্রপাতি মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সমসাময়িক ডেস্ক:মাদকদ্রব্য পাচার, আসক্তি নির্মুল, মাদকের অপপ্রয়োগ নিয়ন্ত্রণে সরকারের রাজনৈতিক স্বদিচ্ছা ও আন্তরিকতার পাশাপাশি সরকারের বিভিন্ন বিভাগের সুষ্ঠু সমন্বয়, প্রশাসনিক সক্ষমতা বৃদ্ধি, নাগরিক সমাজ, বেসরকারী উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান ও গণমাধ্যমের সমন্বিত উদ্যোগ প্রয়োজন। মাদকের ভয়াল আগ্রাসী হানায় অনেক সম্ভাবনাময় জীবন হারিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু মাদক পাচারের সাথে যুক্ত কিছু অসাধু মানুষের অর্থ লিপ্সা ও রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় অপরাধীদের সামাজিক পূর্নবাসনের কারনে সরকারের অনেক উদ্যোগ থাকলেও মাদকের পাচার ও বিস্তার ঠেকানো যাচ্ছে না। মাদক পাচারকারীরা নিত্য নতুন কৌশলে মাদক পাচার করে ভয়াবহতাকে ক্রমাগত বিস্তৃতি ঘটাচ্ছেন। তাই এখন প্রয়োজন মাদকের বিস্তার, পাচার ও অবৈধ ব্যবসা বন্ধে সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় প্রতিরোধ।