দারিদ্র বিমোচনে কৃষির গুরুত্ব সবচেয়ে বেশী-কৃষি মন্ত্রী

Category: ফোকাস Written by agrilife24

ফোকাস ডেস্ক:দারিদ্র বিমোচনে কৃষির গুরুত্ব সবচেয়ে বেশী। কৃষি খাতের উৎপাদন অনেক ভালো। সমস্যা হচ্ছে যখন যে কৃষিজাত পণ্যের উৎপাদন বেশী হয়; তখনই সেটির দাম কমে যায় কৃষক ক্ষতিগ্রস্থ হয়। কৃষককে বাচাঁতে কৃষির আধুনিকায়ণ ও যান্ত্রিকীকরণ অপরিহার্য। দেশে পুষ্টিমান সম্পন্ন খাদ্য উৎপাদন ভালো, কিন্তু আয় ভালো না থাকায় অধিকাংশ মানুষ পুষ্টিকর খাদ্য ক্রয় করতে পারছেনা। বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। কৃষি, অর্থনীতি, সামাজিকসহ সবখাতেই বাংলাদেশ স্বনির্ভর।  

আজ রোববার (১৭ নভেম্বর) কৃষি মন্ত্রী ড.মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে উন্নয়ন মেলা ২০১৯ উপলক্ষ্যে পিকেএসএফ এর আয়োজনে "Livelihood Enhancement Through Modern Agriculture Practices: PKSF’s Experience"-শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা বলেন।

কৃষি মন্ত্রী বলেন; বাংলাদেশের সাথে ফিনল্যান্ডের  ভবিষ্যৎ এ ব্যবসার সম্ভাবনা ভালো। বিশেষত আইটি, স্বাস্থ্যসেবা, একাডেমিক সহযোগিতা, বি টু বি সংযোগ, পরিত্যাক্ত প্লাস্টি আই সাইক্লিং, এনার্জি রিসাইক্লিংসহ বিভিন্ন বিষয়  ব্যবসা করতে আগ্রহী। আমাদের কৃষির আধুনিকায়ন, প্রক্রিয়াজাত, বাজারজাত প্রধান লক্ষ্য।

কৃষি মন্ত্রী আরও বলেন; আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে, তবে সব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা আমাদের একার পক্ষে সম্ভব না। কিছু চ্যালেঞ্জ রয়েছে যার জন্য আমরা দায়ী নই কিন্তু ক্ষতিগ্রস্ত হই আমরাই। কৃষি প্রক্রিয়াজাত কারখানাসহ বিভিন্ন কলকারখানা স্থাপনের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দারিদ্র বিমোচন সম্ভব হবে।

পিকেএসএফ ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মাঈনুদ্দিন আব্দুল্লা’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সচিব মো: নাসিরুজ্জামান। বিশেষ বক্তা ছিলেন কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ওয়াইস কবির।