ধান গাছের ব্লাস্ট রোগ দমনে করণীয়

Category: সমকালীন কৃষি তথ্য Written by agrilife24

ড. কে, এম, খালেকুজ্জামান: ব্লাস্ট রোগ বাংলাদেশে ধানের প্রধান রোগগুলোর মধ্যে অন্যতম। প্রতিবছর আমন ও বোরো মৌসুমে কম-বেশি এ রোগের আক্রমণ দেখা দেয়। এ রোগের আক্রমণে কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েন। বর্তমান সময়ে অতিবৃষ্টির কারণে ধানগাছ ব্লাস্ট রোগে রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশংকা প্রকাশ করেছেন ধান চাষে সংশ্লিস্টরা। তবে রোগটি সম্পর্কে সচেতন থাকলে এর ভয়াবহতা অনেকটাই কাটিয়ে উঠতে পারেন কৃষক ভাইরা।আর এ রোগটি সম্পর্কে জানিয়েছেন বিজ্ঞানী ড. কে, এম, খালেকুজ্জামান।

রোগের নাম: ব্লাস্ট রোগ (Blast)। ধান গাছের ৩ টি অংশে রোগটি আক্রমন করে থাকে। গাছের আক্রান্ত অংশের উপর ভিত্তি করে এ রোগ তিনটি নামে পরিচিত যেমন- ১. পাতা ব্লাস্ট, ২. গিট ব্লাস্ট এবং ৩. নেক/শীষ ব্লাস্ট।
রোগের কারণ: পাইরিকুলারিয়া গ্রিসিয়া (Pyricularia grisea) নামক ছত্রাক দ্বারা হয়ে থাকে।

রোগের বিস্তার:
এই রোগটি আমন ও বোরো উভয় মৌসুমেই হতে পারে। ধানের চারা অবস্থা থেকে ধান পাকার আগ পর্যন্ত যে কোন সময় এ রোগটি হতে পারে। বীজ, বাতাস, কীট-পতঙ্গ ও আবহাওয়ার মাধ্যমে ছড়ায়। রাতে ঠান্ডা, দিনে গরম ও সকালে পাতলা শিশির জমা হলে এ রোগ দ্রুত ছড়ায়। হালকা মাটি বা বেলে মাটি যার পানি ধারণ ক্ষমতা কম সেখানে রোগ বেশী হতে দেখা যায়। জমিতে মাত্রাতিরিক্ত ইউরিয়া সার এবং প্রয়োজনের তুলনায় কম পটাশ সার দিলে এ রোগের আক্রমণ বেশি হয়। দীর্ঘদিন জমি শুকনা অবস্থায় থাকলেও এ রোগের আক্রমণ হতে পারে।

রোগের লক্ষণ:
১.পাতা ব্লাস্ট

২.গীট বা নোড ব্লাস্ট

৩.নেক বা শীষ ব্লাস্ট

রোগের প্রতিকার:

=============================
লেখক:- উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব)
মসলা গবেষণা কেন্দ্র, বিএআরআই
শিবগঞ্জ, বগুড়া।
Mobile No. 01911-762978; 01558-313632; 01673-632486.
E-mail: ;